মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৪:৪৮ অপরাহ্ন১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নোটিশঃ
ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম। নাগরিক আইটি থেকে কম মূল্যে ওয়েবসাইট বানাতে আজই যোগাযোগ করুন। কল করুন- ০১৫২১ ৪৩৮৬০১
সংবাদ শিরোনাম :
সুনামগঞ্জে সহকারী শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে হারিছ উদ্দিনের স্বরণ সভা অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে মৎস্যজীবি লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন হাওর বিষয়ক মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন আন্দোলন ফোরামের সংবাদ সম্মেলন স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীরা বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবীতে কর্মবিরতি পালন নাজমুল হকের অকাল মৃত্যুতে নারী নেত্রী ফেরদৌস আরা পাখি”র শোক ও সমবেদনা দিরাই উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে মত বিনিময় করেন ডক্টর সামছুল হক চৌধুরী মাদ্রাসা উন্নয়নে নগদ অর্থ প্রদান করেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী আবু বক্কর খাঁন সার্চ মানবাধিকার সংগঠনের উদ্যোগে ড. সামছুল হক চৌধুরী ও আবু বক্কর খাঁনকে সংবর্ধনা প্রদান এমপিও নীতিমালার বৈষম্য দূরীকরণের দাবীতে মানববন্ধন সুনামগঞ্জে যুব মহিলালীগের সদর উপজেলা ও পৌর কমিটি অনুমোদন
ইতালিতে মাফিয়াদের বিরুদ্ধে লড়েছিলেন যে বাঙালীরা

ইতালিতে মাফিয়াদের বিরুদ্ধে লড়েছিলেন যে বাঙালীরা

অভিবাসীরা যে দেশে যায়, তারা সে দেশের ওপর বোঝা হয়ে দাঁড়ায় বলেই একটা ধারণা প্রচলিত।

কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অভিবাসীরাও সে দেশের সমাজ জীবনে নানা ধরনের ইতিবাচক ভূমিকা রাখেন, যা নিয়ে প্রচার খুব হয় কমই।

তেমনি একটি ঘটনা ঘটিয়েছেন ইতালির সিসিলি দ্বীপের শহর পালেরমোতে বাংলাদেশি এবং অন্যান্য অভিবাসীরা।

সেখানে তারা ইতালির কুখ্যাত অপরাধী চক্র মাফিয়ার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়িয়েছিলে। এর জেরে বহু মাফিয়া সদস্যকে আটক করে বিচার করা হয়।

আজ বিশ্ব অভিবাসী দিবসে সেই গল্পই বলছিলেন ইতালির পালেরমো ব্যবসায়ী আশরাফ উদ্দিন।

শুরুর দিকে যেভাবে নির্যাতিত হয়েছেন

তিনি বলছেন, “প্রথম যখন এখানে আমরা আসছিলাম, তখন আমরা সংখ্যায় কম ছিলাম। তখন বাঙালিরা এখানে খুব একটা প্রতিষ্ঠিত ছিল না। ওরা বিভিন্ন সময় আমাদের ছিনতাই করতো, রাস্তাঘাটে মারত, এরকম ঘটনাগুলো ঘটতো।”

যখন নির্যাতনের শিকার হতেন তখন তারা বিদেশের মাটিতে সংখ্যায় কম ছিলেন বলে কিছু বলতে পারতেন না। বিশেষ করে মাফিয়াদের বিরুদ্ধে লড়াই করার সাহস তাদের ছিল না।

স্থানীয়রা অপেক্ষাকৃত শক্তিশালী ছিল তাই তাদের বদলে বিদেশের মাটিতে দুর্বল অবস্থায় থাকা মানুষদের মাফিয়ারা টার্গেট করতো। তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোতে মাফিয়ারা চাঁদাবাজি করতো।

আশরাফ উদ্দিন বলছেন, “২০০০ সালের পর থেকে আমরা বাঙালিরা যখন একটু সামনে এগুতে থাকলাম, তখন ওরা আমাদের পিছু নিলো। তারা দোকান এসে বলতো একটা অনুষ্ঠান করবো বা গির্জার জন্য টাকা তুলছি। এইরকম সমস্যাগুলো করতো ওরা।”

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





themesba-zoom1715152249
©সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।
Developed By: Nagorik IT