শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০২:২৭ পূর্বাহ্ন১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নোটিশঃ
ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম। নাগরিক আইটি থেকে কম মূল্যে ওয়েবসাইট বানাতে আজই যোগাযোগ করুন। কল করুন- ০১৫২১ ৪৩৮৬০১
সংবাদ শিরোনাম :
বামিংহামে করোনা দূর্যোগে খাবার বিতরণ করেন আলহাজ্ব কবির উদ্দিন ও ওয়াছিমুজ্জামান ছাতকে মধ্যরাতে জায়গা দখল করে ঘর নির্মাণ-গ্রেপ্তার ১ সুনামগঞ্জে সহকারী শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে হারিছ উদ্দিনের স্বরণ সভা অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে মৎস্যজীবি লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন হাওর বিষয়ক মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন আন্দোলন ফোরামের সংবাদ সম্মেলন স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীরা বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবীতে কর্মবিরতি পালন নাজমুল হকের অকাল মৃত্যুতে নারী নেত্রী ফেরদৌস আরা পাখি”র শোক ও সমবেদনা দিরাই উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে মত বিনিময় করেন ডক্টর সামছুল হক চৌধুরী মাদ্রাসা উন্নয়নে নগদ অর্থ প্রদান করেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী আবু বক্কর খাঁন সার্চ মানবাধিকার সংগঠনের উদ্যোগে ড. সামছুল হক চৌধুরী ও আবু বক্কর খাঁনকে সংবর্ধনা প্রদান
একটু সুযোগ পেলেই হাওর পারের শিশুরা ও হতে পারে বিকশিত

একটু সুযোগ পেলেই হাওর পারের শিশুরা ও হতে পারে বিকশিত

আহাম্মদ কবির,তাহিরপুর হতেঃপ্রত্যেকটা মানুষ জন্মগতভাবে অন্যের থেকে মেধা ও মননে কর্ম ক্ষমতায়, চতুরতায়, ভিন্ন রুচিবোধ ও চিন্তাশক্তি নিয়ে জন্মায়। জন্মের পরবর্তী পরিবেশের আলোকে সে নিজেকে বিকশিত করে তুলে। টাংগুয়ার হাওরে ঘুরতে আসা পর্যটকদের নৌকা দেখলেই ওয়াচ-টাওয়ার সংলগ্ন এলাকায় হাওর পারের অবহেলিত হতদরিদ্র পরিবারের শিশু তামিম তার দলবল নিয়ে সুমিষ্ট স্বরে গান করতে

প্রতিনিয়তই শুনা যায় ।তাদের গলার কন্ঠ সত্যি অবাক করে দেয় ভ্রমণকারীদের,এরা কিন্তু কারও কাছ থেকে গান শেখেনি, এদের নেই কোনো বাদ্যযন্ত্র, এমনকী হয়তোবা গান গাওয়ার জন্য ব্যক্তিগত কোনো সংগ্রহও বা তেমন কোন প্রস্তুতিও নেই তাদের,যখন ইচ্ছে করে তখনই গান গায়।এরা আশপাশের দোকানের টেলিভিশন থেকে বা অন্য কোনোভাবে গান শুনেই এত সুন্দর গান করতে পারে।এদের গান শুনে ভ্রমণপিয়াসীরা এ-ই হাওর পারের ক্ষুদে শিল্পীদের সাথে নিয়ে ছবি তুলে স্ব স্ব পেইজবুক ওয়ালে আবেগময় পোস্ট প্রায়ই নজর কাড়ে,এছাড়াও এই ক্ষুদে শিল্পী তামিমদের গান শুনে তাদের নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে বিভিন্ন শিরোনামে সংবাদও প্রকাশ পেয়েছে । সত্যি খুব অবাক হওয়ারই কথা,এরা যদি মনের চাহিদা পুরণের জন্য, নিজের মেধাকে বিকাশ করার নূন্যতম সুযোগ পেতো তাহলে হয়তো এরাই হতো বিশ্ব সেরা সঙ্গীত তারকা।আর বাংলাদেশ হতো সেই গৌরবের অধিকারী। কিন্তু এই হাওর পারের অবহেলিত পরিবারে জন্ম নেওয়া এই শিশুরা এত-ই দূরভাগা এদের জন্য নূন্যতম কোনো সুযোগ তো দূরের কথা,এদের দু বেলা খাবার ব্যবস্থা করতেও হিমসিম পেতে হয় প্রতিনিয়ত এই পরিবার গুলো ।

স্থানীয় টাংগুয়ার হাওর এলাকার অনেকের সাথে আলাপচারিতায় জানাযায় হাওর পারে এরকম অনেক পরিবার রয়েছে যারা তার সন্তানকে ভালো ভাবে লেখা-পড়া করাতে পারে না অর্থে অভাবে। কিন্তু তাদের সন্তানের রয়েছে অদম্য মেধা ও ইচ্ছা শক্তি। একটা মেধা ঝড়ে পড়া একটা সমাজের বা দেশের জন্য কতটা দুঃখজনক তা ভাষায় প্রকাশ করার মতো না।

যতনে বাড়ে রতন’ কথাটা সামান্য একটা প্রবাদ হলেও এর অর্থমূল্য অনেক। আজকের টাংগুয়ার হাওর পারে গান গাওয়া শিশুদের জন্য সুযোগ করে দিতে পারলে আমরা হয়তো মাইকেল জ্যাকসনের মতো বা তার চাইতে বড় তারকা পেতাম। । সামান্য সুযোগ হয়তো তাদের প্রতিভার পূর্ণ বিকাশ ঘটাতে পারে। বাংলাদেশের মাটিতে আইনস্টাইন জন্ম নিবে না বা নিউটন হবে না কোনো বিধান নেই। মায়ের কোলের ছোট সেই খোকাই যে একদিন বিশ্ব রত্ন হবে এটা তার মা নিজেও জানতো না।

মেধা এমন সম্পদ যার কোনও মরণ নেই। এমন অস্ত্র যার আঘাত প্রতিহত করার কোনো ক্ষমতা নেই। মেধা কোনো দল মতের সম্পত্তি নয় এটা গোটা দেশ-জাতি ও বিশ্বের সম্পদ। বিকাশ করার জন্য জায়গা ছেড়ে দিতে হবে। করতে হবে তার জন্য অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি। কবি সুকান্ত বুঝতে পেরেই বলেছিলেন শিশুর জন্য জায়গা ছেড়ে দিতে। চীন, উত্তর কোরিয়াসহ বিশ্বের জনবহুল দেশগুলো জনসংখ্যার ভারে তলিয়েও যায়নি বা তারা পিছিয়েও পড়েনি। বরং তারাই আজ বিশ্বে বিরাজ করছে। জনসংখ্যাকে তারা সমস্যা নয় সম্পদ মনে করে কাজে লাগিয়েছে। আমাদের দেশে রয়েছে চীন, উত্তর কোরিয়ার চাইতেও বেশি উন্নয়নের সুযোগ। কারণ আমাদের দেশের ভিতরে সোনার খনি নেই তবে আমাদের দেশে সোনা ফলে। এত সুবিশাল মানব সম্পদ সম্পন্ন দেশ বিশ্বে বিরল।

ঈদের অবসরে টাংগুয়ার হাওরের প্রকৃতির সাথে খেলা ও আনন্দ উপভোগ করতে গত ৫,জানুয়ারি ২০১৯ইং তাহিরপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার( ভূমি)মুনতাসির হাসান পলাশ টাংগুয়ার হাওরে ঘুরতে এসে হাওর পারের ক্ষুদে শিল্পী তামিম এর গান শুনে উনার সামাজিক মাধ্যম পেইজ বুকে লিখেছেন,যতবারই টাংগুয়ারে যাই,তামিমের মিষ্টি কন্ঠের গান শুনতে পাই। আজও ঈদের আনন্দ ভ্রমণে বাড়তি আনন্দ যোগ করেছে এই পিচ্চি তামিম। উনি লিখেছেন ওরা হচ্ছে সৃষ্টি কর্তার প্রদত্ত প্রতিভা,সুযোগ পেলে ওরা বিকশিত হতে পারবে।তামিমের জন্য রইল ভালোবাসা ও শুভকামনা।

এ বিষয়ে কথা হয় এই পিচ্চি তামিমের সাথে,তামিম অশ্রুসিক্ত নয়নে বলে,আমরা অবহেলিত হতদরিদ্র পরিবারের সন্তান।ইচ্ছা থাকলেও আমরা কি পারবো সেই ইচ্ছার স্বাদ পূরণ করতে। তবে সাধুবাদ জানাই যারা খানিকটা আনন্দের জন্য হলে আমাদের গান শুনে আমাদের ভালবাসে তারা তাদের অভিমত প্রকাশ করেছেন। সে বলে তাদের মধ্যে একজন হলেন যিনি আমাকে জড়িয়ে ধরে খুব আদর করতেন উনাকে হাওরে আসতে আর দেখিনি।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





themesba-zoom1715152249
©সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।
Developed By: Nagorik IT