বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১০:২৪ পূর্বাহ্ন১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নোটিশঃ
ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম। নাগরিক আইটি থেকে কম মূল্যে ওয়েবসাইট বানাতে আজই যোগাযোগ করুন। কল করুন- ০১৫২১ ৪৩৮৬০১
সংবাদ শিরোনাম :
ছাতকে মধ্যরাতে জায়গা দখল করে ঘর নির্মাণ-গ্রেপ্তার ১ সুনামগঞ্জে সহকারী শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে হারিছ উদ্দিনের স্বরণ সভা অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে মৎস্যজীবি লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন হাওর বিষয়ক মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন আন্দোলন ফোরামের সংবাদ সম্মেলন স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীরা বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবীতে কর্মবিরতি পালন নাজমুল হকের অকাল মৃত্যুতে নারী নেত্রী ফেরদৌস আরা পাখি”র শোক ও সমবেদনা দিরাই উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে মত বিনিময় করেন ডক্টর সামছুল হক চৌধুরী মাদ্রাসা উন্নয়নে নগদ অর্থ প্রদান করেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী আবু বক্কর খাঁন সার্চ মানবাধিকার সংগঠনের উদ্যোগে ড. সামছুল হক চৌধুরী ও আবু বক্কর খাঁনকে সংবর্ধনা প্রদান এমপিও নীতিমালার বৈষম্য দূরীকরণের দাবীতে মানববন্ধন
টঙ্গীর তুরাগতীরে বিশ্ব ইজতেমা মুসল্লিরা ইজতেমা ময়দানে জড়ো হচ্ছেন।

টঙ্গীর তুরাগতীরে বিশ্ব ইজতেমা মুসল্লিরা ইজতেমা ময়দানে জড়ো হচ্ছেন।

নিউ টাইমর্স২৪ডেস্ক :: টঙ্গীর তুরাগ তীরে শুরু হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। আনুষ্ঠানিকভাবে ইজতেমা শুরুর দুই-তিনদিন আগে থেকেই ময়দানে প্রবেশ শুরু করেন মুসল্লিরা। শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) ফজরের পর আমবয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হবে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব।

ময়দান প্রস্তুতের কাজ প্রায় সম্পন্ন বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা। বরাবরের মতো এবারও থাকছে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা। ইজতেমা ময়দানে পাঁচস্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করার কথা জানিয়েছে পুলিশ প্রশাসন।

প্রচন্ড শীত উপেক্ষা করে এরইমধ্যে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে মুসল্লিরা ইজতেমা ময়দানে জড়ো হচ্ছেন। মুসল্লিদের চাপে আবদুল্লাহপুর থেকে গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা এবং আশুলিয়ার নবীনগর পর্যন্ত দেখা দিয়েছে ব্যাপক যানজট।

পুরো ইজতেমার ময়দানজুড়ে সিসিটিভি, আর্চওয়ে, মেটাল ডিটেক্টর থাকছে।

সার্বিক নিরাপত্তায় এবার ইজতেমায় প্রায় সাড়ে ৮ হাজার পুলিশ সদস্য কাজ করবেন। ২০ লাখ মুসল্লির সমাগমকে সামনে রেখে প্রতিদিন সাড়ে ৩ কোটি গ্যালন পানির ব্যবস্থা থাকছে। বাড়তি টয়লেট নির্মাণ ও স্থায়ী টয়লেটগুলো ব্যবহার উপযোগী করা হয়েছে।
আগামী ১০, ১১, ১২ জানুয়ারি রাজধানীর কাকরাইল জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা জোবায়ের আহমেদের অনুসারী মুসল্লিরা এ বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নেবেন। ১২ জানুয়ারি রোববার দুপুরে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে ইজতেমা। ১৩ জানুয়ারি সকালের মধ্যে ময়দান ত্যাগ করবেন মুসল্লিরা। পরে মাওলানা সাদ পন্থী মুসল্লিরা আগামী ১৭ জানুয়ারি শুক্রবার বাদ ফজর থেকে শুরু হওয়া ইজতেমায় অংশ নেবেন। ১৯ জানুয়ারি দুপুরে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এ বছরের বিশ্ব ইজতেমা।

বৃহস্পতিবার (৯ জানুয়ারি) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ব ইজতেমা মিডিয়া সমন্বয়কারী মুফতি জহির ইবনে মুসলিম।

স্থান সংকুলান সমস্যার সমাধানে ২০১১ সাল থেকে টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমা তিনদিন করে দুই পর্বে অনুষ্ঠিত হয়। তবে ২০১৮ সালে মাওলানা সাদকে ঘিরে বিবাদে লিপ্ত হয়ে পড়ে তাবলীগ জামাত। এনিয়ে বিভিন্ন সময় সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটে। এরপর থেকে দুই পক্ষ আলাদা করে ইজতেমায় অংশগ্রহণ করছে।

ইজতেমা আয়োজকরা জানান, এবার দেশের ৬৪ জেলার মুসল্লিদের সুবিধার জন্য ইজতেমা ময়দান ৯২টি খিত্তায় ভাগ করা হয়েছে। মুসল্লি বেশি হয়ে গেলে তাদের জন্য আরও পাঁচটি খিত্তা রিজার্ভ রাখা হয়েছে।

আয়োজক কমিটির ধারণা, গতবারের চেয়ে এবার কয়েকগুন বেশি মুসল্লি ময়দানে অবস্থান নিবেন।
এদিকে, বিভিন্ন জেলার মুসল্লিরা তাদের সামানা নিয়ে ময়দানে অবস্থান করতে দেখো গেছে। একদিকে চলছে ময়দানে চলছে সর্বশেষ প্রস্তুতি, অপরদিকে চলছে মুসল্লিদের প্রবেশ..সংগ্রহ তাজা খবর

শেয়ার করুন
  • 25
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





themesba-zoom1715152249
©সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।
Developed By: Nagorik IT