শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৪:৩৪ অপরাহ্ন১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নোটিশঃ
ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম। নাগরিক আইটি থেকে কম মূল্যে ওয়েবসাইট বানাতে আজই যোগাযোগ করুন। কল করুন- ০১৫২১ ৪৩৮৬০১
সংবাদ শিরোনাম :
বামিংহামে করোনা দূর্যোগে খাবার বিতরণ করেন আলহাজ্ব কবির উদ্দিন ও ওয়াছিমুজ্জামান ছাতকে মধ্যরাতে জায়গা দখল করে ঘর নির্মাণ-গ্রেপ্তার ১ সুনামগঞ্জে সহকারী শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে হারিছ উদ্দিনের স্বরণ সভা অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে মৎস্যজীবি লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন হাওর বিষয়ক মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন আন্দোলন ফোরামের সংবাদ সম্মেলন স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীরা বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবীতে কর্মবিরতি পালন নাজমুল হকের অকাল মৃত্যুতে নারী নেত্রী ফেরদৌস আরা পাখি”র শোক ও সমবেদনা দিরাই উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে মত বিনিময় করেন ডক্টর সামছুল হক চৌধুরী মাদ্রাসা উন্নয়নে নগদ অর্থ প্রদান করেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী আবু বক্কর খাঁন সার্চ মানবাধিকার সংগঠনের উদ্যোগে ড. সামছুল হক চৌধুরী ও আবু বক্কর খাঁনকে সংবর্ধনা প্রদান
তাহিরপুরে বাঁধের গোড়া থেকে ১৮ফুট গর্ত করে ফসল রাক্ষা বাঁধ নির্মাণ

তাহিরপুরে বাঁধের গোড়া থেকে ১৮ফুট গর্ত করে ফসল রাক্ষা বাঁধ নির্মাণ

তাহিরপুর প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় খাউজ্যাউরী হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ সংস্কারকাজে পাউবোর অধীনে গঠিত ৩৬ নং পিআইসির সভাপতির বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

আজ বাঁধের ১৫ফুট দুরত্ব থেকে ১৮ফুট গর্ত করে মাটি তুলে ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণ কাজ করেছে । এতে চলতি বোরো মৌসুমে আগাম বন্যায় বাঁধ ভেঙে গিয়ে ফসল তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন কৃষকরা।
আজ (২১ফেব্রুয়ারী)তাহিরপুর উপজেলা বাঁধ মনিটরিং কমিটির সদস্য ওয়াহিদ খসরুল সহ উপজেলা কর্মরত গণমাধ্যম কর্মীদের একাংশ সরেজমিনে উপজেলা উপজেলা খাউজ্যাউরী হাওর সহ বিভিন্ন হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ ঘুরে জানাযায় উপজেলা ফসল রক্ষা বাঁধ বাস্তবায়ন কমিটির ৩৬ নম্বর প্রকল্পের সভাপতি বুলবুল মিয়া পাউবোর বেঁধে দেওয়া কোনো নীতিমালা মানছেন না। তিনি নিজের ইচ্ছামতো এক্সকাভেটর মেশিন দিয়ে বাঁধের গোড়া থেকে ১৮ফুট গর্তকরে মাটি তুলে মেরামতের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।উনার নির্মাণাধীন বাঁধে পা দিয়ে চাপ দিলে পা দেবে যায়।
কৃষকদের অভিযোগ, গত বছর হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধগুলো টেকসইভাবে নির্মাণ ও মেরামত করার ফলে ফসলের কোনো ক্ষতি হয়নি। কিন্তু এবার সংস্কারকাজে অন্যান্য বছরের চেয়েও বেশি বরাদ্দের পরেও বুলবুল মিয়া সহ আরো অনেক প্রকল্পের সভাপতি নীতিমালা ভেঙে বাঁধ মেরামত করছেন।

পাউবো ও উপজেলা বাঁধ মনিটরিং কমিটির তথ্য সুত্রে জানা গেছে, চলতি বোরো মৌসুমে সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অধীনে থাকা তাহিরপুর উপজেলার বিভিন্ন হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ মেরামতে স্থানীয় কৃষকদের সমন্বয়ে ৭০ টি প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি গঠন করা হয়। আর এসব প্রকল্পের বিপরীতে পাউবো থেকে ১৩কোটি ৪২লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। এবং গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর থেকে শুরু করে তা চলতি ২৮ফেব্রুয়ারির মধ্যে শেষ করার জন্য সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়। কিন্তু সময়সীমার আর মাত্র ৭ দিন বাকি থাকার পরও টাংগুয়ার হাওর সংলগ্ন গলগলিয়া হাওরে ৩৮নং পি,আই সির বাঁধে মাটি ফালানোর কাজ হয়েছে প্রায় ২৫%, কচ্ছপ গতিতে চলছে বাঁধের কাজ, মাটি লেবেল করা হলেও মাটি কমপেকশ করতে কাউকে দেখা যায়নি। এবং বাঁধের আশেপাশে কোন দুরমুজ দেখা মিলেনি, এছাড়াও উনার বিরুদ্ধে স্থানীয় কৃষকদের রয়েছে বিভিন্ন অভিযোগ।

এদিকে প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটিকে পাউবোর বেঁধে দেওয়া নীতিমালা অনুযায়ী বাঁধের অন্তত ১০০ ফুট দূর থেকে মাটি কেটে এনে বাঁধে ফেলার কথা থাকলেও খাউজ্যাউরী হাওরের ৩৬নম্বর প্রকল্প কমিটির সভাপতি বুলবুল মিয়া পাউবোর নিয়মনীতিকে তোয়াক্কা না করে উনার ইচ্ছামত দায়সারা ভাবে চালিয়ে যাচ্ছেন বাঁঁধ নির্মাণ কাজ। এ ব্যাপারে কথা বলতে অভিযুক্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি বুলবুল মিয়ার সাথে স্ব শরীরে কথা বললে উনি বলেন বাঁধের কাছের গর্ত মাটি ফেলে ভরাট করে ফেলবো এরি একপর্যায়ে উনি বলেন উনার না-কি উপর মহলে লোক রয়েছে এসব কিছু হবে না।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন মনিটরিং কমিটির সদস্য, তাহিরপুর উপজেলা কৃষকলীগের সিনিয়র যুগ্ন অাহ্বায়ক এম কে ওয়াহিদ চৌধুরী খসরু,বলেন আজ উপজেলা খাউজ্যাউরী হাওরের ৩৬নং পি,আই,সি সহ বিভিন্ন বাঁধের কাজ সরেজমিনে যাহা দেখলাম একটি বাঁধের কাজও পাউবোর নিয়মনীতি মানা হয়নি।

এব্যাপারে তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গণমাধ্যম কে বলেন বিষয়টি আমি দেখতেছি নিয়মবহির্ভূত কাজ করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন
  • 97
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





themesba-zoom1715152249
©সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।
Developed By: Nagorik IT