শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০২:১১ অপরাহ্ন২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নোটিশঃ
ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম। নাগরিক আইটি থেকে কম মূল্যে ওয়েবসাইট বানাতে আজই যোগাযোগ করুন। কল করুন- ০১৫২১ ৪৩৮৬০১
সংবাদ শিরোনাম :
জগন্নাথপুর পৌরসভার সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী আব্দুল মতিন লাকী দেশে আসছেন ১০ ডিসেম্বর বামিংহামে করোনা দূর্যোগে খাবার বিতরণ করেন আলহাজ্ব কবির উদ্দিন ও ওয়াছিমুজ্জামান ছাতকে মধ্যরাতে জায়গা দখল করে ঘর নির্মাণ-গ্রেপ্তার ১ সুনামগঞ্জে সহকারী শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে হারিছ উদ্দিনের স্বরণ সভা অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে মৎস্যজীবি লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন হাওর বিষয়ক মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন আন্দোলন ফোরামের সংবাদ সম্মেলন স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীরা বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবীতে কর্মবিরতি পালন নাজমুল হকের অকাল মৃত্যুতে নারী নেত্রী ফেরদৌস আরা পাখি”র শোক ও সমবেদনা দিরাই উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে মত বিনিময় করেন ডক্টর সামছুল হক চৌধুরী মাদ্রাসা উন্নয়নে নগদ অর্থ প্রদান করেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী আবু বক্কর খাঁন
তাহিরপুরে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রেমিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ

তাহিরপুরে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রেমিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ

শাবজল হোসাইন,তাহিরপুর প্রতিনিধি::সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে ১৫ বছর বয়সি এক মেয়েকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে অমানুষিক নির্যাতনসহ ধর্ষণ করে প্রেমিক শহিদ। পরের দিন প্রেমিকা লিপিকে তার বাড়ির সামনে ফেলে যায় এমন অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ভিকটিম হলেন-উপজেলার উঃ শ্রীপুর ইউনিয়নের কদমতলী গ্রামের মৃত ইউসুফ আলীর মেয়ে লিপি আক্তার।

ধর্ষণকারী হলেন এখই ইউনিয়নের বেতাগড়া গ্রামের জহুর মিয়ার ছেলে শহিদ মিয়া(২৪)।

ঘটনাটি ঘটে-গত (৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ২টার দিকে উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের কদম তলী গ্রামে।

এবিষয়ে ভিকটিম লিপি বাদী হয়ে আজ দুপুর ২ টার দিকে তাহিরপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

স্থানীয়রা জানান- শহিদের ঘরে বিবাহিত স্ত্রী থাকা সত্বেও গরীব অসহায় মেয়েটির জীবন ধ্বংস করলো।শহিদের সাথে ভিকটিম লিপি আক্তারের প্রেমের সর্ম্পক ছিলো গত কয়েক মাস ধরে। সেই সম্পর্কের সূত্র ধরেই গত বুধবার দুপুরে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভিকটিম লিপিকে নিয়ে পালিয়ে যায় প্রেমিক শহিদ।এরপর শহিদ ও লিপি আশ্রয় নেয় শহিদের এক আত্মীয় বাড়িতে।সেখানে নেওয়ার পর বিয়ে কারার কথা বলে প্রেমিকা লিপির ইচ্ছার বিরুদ্ধে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয় প্রেমিক শহিদ। পরের দিন বাড়িতে এসে বিয়ে করবে বলে ভিকটিম লিপিকে বাড়িতে নিয়ে আসে প্রেমিক শহিদ। ভিকটিম লিপির বাড়ির সামনে আসতেই ভিকটিম লিপিকে ফেলে চলে যায় প্রেমিক শহিদ। পরে এলাকায় বিষয়টি জানা জানি হলে ভিকটিম লিপির মা এলাকার মাতাব্বরদের বিষয়টি অবগত করেন। পরের দিন শুক্রবার সন্ধ্যার পর গ্রাম্য সালিসে বিষয়টি সমাধানের আলোচনা হয়,তবে গ্রাম্য সালিসে বিবাদীরা কেউ আসেননি বলে জানাযায়।ভিকটিম লিপি ৩ দিন অপেক্ষা করেও এর কোনো সুরাহা পেলো না।অবশেষে বাধ্য হয়ে আইনের আশ্রয় নিয়েছে।

এবিষয়ে আলী হোসেন মেম্বার বলেন-ভিকটিম লিপি ও তার মা আমাকে বিষয়টি অবগত করেছিলেন।শুক্রবার সন্ধ্যার পর গ্রাম্য সালিসে বিষয়টি সমাধানের কথাছিলো।কিন্তু বিবাদীরা কেউ সালিসে আসেনি। ধর্ষণকারী শহিদকে দ্রুত গ্রেফতার ও কঠিন শাস্তির দাবী জানান এলাকাবাসী।

এবিষয়ে ভিকটিমের মা হালেমা বেগম বলেন-আমার মেয়ের সাথে শহিদের প্রেমের সর্ম্পক ছিলো এটা আমি জানতাম না।ঘটনার পর জানতে পারলাম।আমার মেয়েটিকে সহজ সরল পেয়ে উস্কানি দিয়ে আমার মেয়েকে নিয়ে পালিয়ে যায় বিবাদী শহিদ। আমার মেয়েকে শহিদের আত্মীয়র বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করে পরের দিন বাড়ির সামনে রাস্তায় ফেলে যায়।এখন আমার মেয়েকে সে বিয়ে করতে চায় না,কিছু টাকা দিয়ে বিষয়টি ধামাচাপা দিতে চায়।আমার মেয়ের ইজ্জত নষ্ট করে এখন বিবাদীরা টাকা দিয়ে ইজ্জতের মূল্য দিতে চায়।

তাই আমরা আইনের আশ্রয় নিয়েছি।

এবিষয়ে ভিকটিম লিপি বলেন-শহিদ আমাকে বিয়ে করবে বলে বুধবার দুপুরে আমাকে নিয়ে পালিয়ে তার আত্মীয়র বাড়িতে।সেখানে আমার মতের বিরুদ্ধে জোর করে আমাকে ধর্ষণ করে।আমি প্রতিবাদ করেও লাভ হয়নি।বৃহস্পতিবার সকালে আমাকে বিয়ে করবে বলে বাড়ি নিয়ে আসার সময় আমার বাড়ির কাছাকাছি এসে আমাকে ফেলে চলে যায়।আমার সাথে এতো কিছু করে এখন শহিদ আমাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করে,টাকা নিয়ে মূখ বন্ধ রাখতে বলে।

তাই আমি বাধ্য হয়ে আইনের আশ্রয় নিয়েছি।

এবিষয়ে তাহিরপুর থানার ওসি মোঃ আতিকুর রহমান বলেন-এবিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি,খুব দ্রুত ধর্ষণকারীকে আইনের আওতায় আনা হবে।

শেয়ার করুন
  • 57
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





themesba-zoom1715152249
©সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।
Developed By: Nagorik IT