শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:৪৮ অপরাহ্ন১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নোটিশঃ
ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম। নাগরিক আইটি থেকে কম মূল্যে ওয়েবসাইট বানাতে আজই যোগাযোগ করুন। কল করুন- ০১৫২১ ৪৩৮৬০১
সংবাদ শিরোনাম :
বামিংহামে করোনা দূর্যোগে খাবার বিতরণ করেন আলহাজ্ব কবির উদ্দিন ও ওয়াছিমুজ্জামান ছাতকে মধ্যরাতে জায়গা দখল করে ঘর নির্মাণ-গ্রেপ্তার ১ সুনামগঞ্জে সহকারী শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে হারিছ উদ্দিনের স্বরণ সভা অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে মৎস্যজীবি লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন হাওর বিষয়ক মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন আন্দোলন ফোরামের সংবাদ সম্মেলন স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীরা বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবীতে কর্মবিরতি পালন নাজমুল হকের অকাল মৃত্যুতে নারী নেত্রী ফেরদৌস আরা পাখি”র শোক ও সমবেদনা দিরাই উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে মত বিনিময় করেন ডক্টর সামছুল হক চৌধুরী মাদ্রাসা উন্নয়নে নগদ অর্থ প্রদান করেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী আবু বক্কর খাঁন সার্চ মানবাধিকার সংগঠনের উদ্যোগে ড. সামছুল হক চৌধুরী ও আবু বক্কর খাঁনকে সংবর্ধনা প্রদান
দালাল খন্দকার ইলিয়াছের খপ্পরে পড়ে নিজস্ব এক অসহায় সিরাজ।

দালাল খন্দকার ইলিয়াছের খপ্পরে পড়ে নিজস্ব এক অসহায় সিরাজ।

নিউ টাইমর্স২৪ডেস্কঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সদর থানাধীন ঘাটিয়ারা গ্রামের মোঃ সিরাজ খান পিতাঃ মোঃ রফিক খান বিগত ৮ (আট) মাস পূর্বে তার প্বাশবর্তী উজানিসার গ্রামের আদম বেপারী(দালাল) খন্দকার ইলিয়াস পিতাঃ ফিরোজ খন্দকা, মাতাঃ আম্বিয়া খাতুন কে ৪ লাখ ৪০ হাজার টাকা নগদ প্রদান করে, জে এন্ড জে ওয়াল্ড ওয়াইড সার্ভিস লিমিটেড,হাজী শাহাবুদ্দিন ম্যানশন,হাউজ নাম্বার ৮৪(৪ র্থ তলা),নতুন এয়ারপোর্টে রোড, বনানী,ঢাকা এর মাধ্যমে ভাল কাজ ও ভাল বেতনের আশায় সৌদি আরব যায়। সেখানে পৌঁছার পর মোঃ শরিফ নামক একজন বাংলাদেশী এয়ারপোর্ট থেকে এসে নিয়ে যেয়ে সৌদির রাজধানী রিয়াদের ইশারা হাজ্জান নামক স্থানের একটি রুমে আটকিয়ে তার সাথে থাকা পাসপোর্ট নিয়ে যায়।দীর্ঘ ২ (দুই) মাস সেখানে আটকিয়ে রেখে অমানবিক মানসিক নির্যাতন করেন। ভুক্তভোগী সিরাজের অনেক কান্নাকাটির পরে মোঃ শরিফ জানায় আরও কিছু দিন অপেক্ষা করলে তাকে ভাল কাজে লাগিয়ে দেয়া হবে,তার কথা মত বেশ কিছুদিন অপেক্ষা করার পর তাকে রিয়াদ এয়ারপোর্টে লোডিং আনলোডিং কাজে লাগানোর জন্য নিয়ে যাওয়া হলে এয়ারপোর্ট কতৃপক্ষ জানায় ইকামা ছাড়া কাউকে কাজে লাগানো হবে না।এই কথা শোনার পর মোঃ শরিফ আবারও সিরাজকে গৃহবন্দী করার উদ্দেশ্যে পূর্বের ঠিকানায় নিয়ে এসে আটকিয়ে রেখে মানসিক নির্যাতন চালায়।এই খবর পেয়ে তার পরিবারের সদস্যরা দালাল ইলিয়াসের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে ইলিয়াস তার পেশীশক্তি দিয়ে নানা ধরনের হুমকি ধমকি দিতে থাকে পরিশেষে অনেক চেষ্টা করে যোগাযোগ করে সিরাজের অবস্থা বর্ননা করিলে দালাল ইলিয়াস তার উর্ধ্বতন মোঃ নয়ন মিয়ার সাথে কথা বলে শরিফকে দিয়ে সিরাজকে কাজ দেয়ার জন্য জেদ্দা পাঠিয়ে দেয়।ঐখানে দীর্ঘ ১ মাস বসিয়ে রেখে কোন কাজ না দিতে পেরে অবশেষে দাম্মাম শহর থেকে দূরে একটি গ্রামের পুলিশ ফাঁড়িতে ১ হাজার সৌদি রিয়াল বেতনের কথা বলে কাজে লাগিয়ে দেয়।কিন্তু মাস শেষ হওয়ার পর সময় মত বেতন না পাওয়ার কথা শরিফকে জানালে সে ৭শত ৫০ রিয়াল দিয়ে বলে ঠিকমত কাজ করতে থাক পরের মাস থেকে সময় মত বেতন দেয়া হবে, এই কথার উপর ভরসা করে পরবর্তী মাস কাজ শেষে বেতন চাহিতে গেলে পুলিশ ফাঁড়ির কতৃপক্ষ জানায় তাদের কোম্পানি সাথে হওয়া কন্টাক্ট শেষ তাই অনত্রে চলে যেতে।এই ব্যাপারে সিরাজ মুঠোফোনেে শরিফের সাথে কথা বলতে চাইলে শরিফ তার মুঠোফোন বন্ধ করে দিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়।বর্তমানে সিরাজ ইকামা বিহীন অপরিচিত শহরে অবৈধ অবস্থা মানবেতর জীবন যাপন করে আসতেছে।এদিকে তার পরিবারের সদস্যরা তার বিদেশে যাওয়ার সময় অন্যের কাছ থেকে সুদে নিয়া আসা টাকা ফেরত দেয়ার তাগিদে বাড়িঘর ছেড়ে অনত্রে বসবাস করতেছ।অবশেষে ০৯/০১/২০২০ইং তারিখে প্রবাসীর স্ত্রী ছালেহা বেগম মানবাধিকার সংস্থা”হিউম্যান রাইটস রিসোর্স রিভিউ ফাউন্ডেশনে সহয়তার জন্য আবেদন করিলে, ১০/১০/২০২০ইং তারিখে অত্র সংস্থার সমগ্র বাংলাদেশের কার্যনির্বাহী পরিচালক মোঃবাবুল ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সহকারী পরিচালক মোঃ আমিন খান সহ প্রবাসীর স্ত্রীকে নিয়ে দালাল ইলিয়াসের নিকট গেলে তিনি জানায় এই ব্যাপারে অবগত রয়েছেন এবং তারা চেষ্টা করতেছেন দ্রুত ইকামার ব্যবস্থা করে কথা মত কাজে লাগিয়ে দেয়ার জন্য।মানবাধিকার সংস্থার কার্যনির্বাহী পরিচালকের এক প্রশ্নের জবাবে কত দিনের মধ্যে সিরাজের সকল সমস্যা সমাধান করে দেয়া হবে ইলিয়াস জানায় তার উর্ধ্বতন মোঃ নয়ন সমস্যা সমাধানের জন্য সৌদি আরব গিয়েছেন আগমী এক সপ্তাহের মধ্যে সকল সমস্যা সমাধান করে দেয়া হবে অন্যথায় সকল ক্ষতিপূরন প্রদান করিবেন বা আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হলে তা মাথা পেতে মেনে নিবেন বলে জানায়।অত্র সংস্থার কর্মকর্তা ইলিয়াসের বাড়ির আশেপাশের এলাকার লোকজনের কাছে খবর নিয়ে জানতে পারেন সে একজন প্রতারক প্রকৃতির লোক। দীর্ঘ দিন ধরে গ্রামের সহজ সরল মানুষদের কাছ থেকে একই কায়দায় প্রতারনা করে গ্রামে আলিশান বিল্ডিং ও ঢাকা শহরে বাড়ি বানিয়েছেন। এক ভুক্তভোগী মোঃ জালাল মোল্লা জানায় তার কাছ থেকেও কুয়েতের জাল ভিসা দেখিয়ে ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা নিয়েছে আজ পর্যন্ত ফেরত দেয়নি।শুধু তাই নয় তার প্রতারণার ছোবল থেকে তার আপন ভাতিজাও রেখাই পাইনি।প্রতারণার শিকার সকলে দাবি অনতিবিলম্বে তাকে আইনের আওতায় নিয়ে এসে শাস্তি নিশ্চিত করে এই প্রতারকের কবল থেকে সমাজকে রক্ষা করে প্রতারক মুক্ত সোনার বাংলা গড়া। এই সকল প্রতারকদের বিচারের আওতায় নিয়ে এসে ন্যায় বিচার না করলে জনমনে বিচার ব্যবস্থাকে প্রশ্নবিদ্ধ করা হবে।সংগ্রহঅনলাইন পোর্টাল নয়াযুগান্তর।

শেয়ার করুন
  • 40
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





themesba-zoom1715152249
©সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।
Developed By: Nagorik IT