সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ০১:০৩ পূর্বাহ্ন১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নোটিশঃ
ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম। নাগরিক আইটি থেকে কম মূল্যে ওয়েবসাইট বানাতে আজই যোগাযোগ করুন। কল করুন- ০১৫২১ ৪৩৮৬০১
সংবাদ শিরোনাম :
হাওর বিষয়ক মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন আন্দোলন ফোরামের সংবাদ সম্মেলন স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীরা বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবীতে কর্মবিরতি পালন নাজমুল হকের অকাল মৃত্যুতে নারী নেত্রী ফেরদৌস আরা পাখি”র শোক ও সমবেদনা দিরাই উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে মত বিনিময় করেন ডক্টর সামছুল হক চৌধুরী মাদ্রাসা উন্নয়নে নগদ অর্থ প্রদান করেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী আবু বক্কর খাঁন সার্চ মানবাধিকার সংগঠনের উদ্যোগে ড. সামছুল হক চৌধুরী ও আবু বক্কর খাঁনকে সংবর্ধনা প্রদান এমপিও নীতিমালার বৈষম্য দূরীকরণের দাবীতে মানববন্ধন সুনামগঞ্জে যুব মহিলালীগের সদর উপজেলা ও পৌর কমিটি অনুমোদন স্মরণ উপ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় যুবলীগ নেতা হৃদয়’র অভিনন্দন দেশ ও প্রবাসের নতুন স্থান পেয়েছেন সার্চ মানবাধিকার সোসাইটি কেন্দ্রীয় কমিটিতে
নিহত কুদরত আলীর দাফন সম্পন্ন ও স্বামী স্ত্রী গ্রেফতার।

নিহত কুদরত আলীর দাফন সম্পন্ন ও স্বামী স্ত্রী গ্রেফতার।

বিশেষ প্রতিনিধিঃ দোয়ারাবাজারে দুই ছানামুড়ি বিক্রেতার মধ্যে ২০ টাকা পাওনা নিয়ে বিরোধের জেরে নিহত কুদরত আলী কদুর দাফন সম্পন্ন হয়েছে। রবিবার বিকালে নামাজে জানাযা শেষে বড়কাটা গ্রামের কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। এর আগে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে তার লাশ বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। এ সময় কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন নিহত কুদরত আলী কদুর স্বজনরা। তাকে শেষবাবের মতো দেখতে তার আত্বীয়স্বজনসহ এলাকাবাসী বাড়িতে ভিড় করেন।

এদিকে কুদরত আলী কদুর হত্যার ঘটনায় শনিবার (২৫ জানুয়ারী) রাতে দোয়ারাবাজার থানায় বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের ছেলে এনাম মিয়া।

দোয়ারাজার থানা সূত্রে জানা যায়, দোয়ারাবাজার উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের বড়কাটা গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে আব্বাস মিয়া(৩০) ও তার স্ত্রী রোহেনা বেগম (২২)কে আসামী করে এ হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। এদিকে ঘটনার পরপরই তাদেরকে আটক করে ও পরে এ হত্যা মামলায় এ দুইজনকে গ্রেপ্তার দেখায় পুলিশ। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে দোয়ারাবাজার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আবুল হাশেম বলেন, ২০ টাকা পাওনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় ২ আসামীকে আটক করা হয়েছে। আসামীরা হত্যাকান্ডের বিষয়টি পুলিশের নিকট স্বীকার করেছে। উল্লেখিত আসামীদ্বয়ের স্বেচ্ছায় প্রদত্ত মৌখিক জবানবন্দী গ্রহণের লক্ষ্যে বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট’র নিকট প্রেরণ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, দোয়ারাবাজার উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের বড়কাটা গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে আব্বাস মিয়া একই গ্রামের কুদরত আলীর নিকট ২০ টাকা পাওনা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। মাত্র ২০ টাকা নিয়ে এই বিরোধ মুহূর্তের মধ্যেই হাতাহাতিতে রুপ নেয়। হাতাহাতির এক পর্যায়ে কুদরত আলী ঘটনাস্থলেই নিহত হন।

শেয়ার করুন
  • 19
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





themesba-zoom1715152249
©সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।
Developed By: Nagorik IT