শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০৩:০১ অপরাহ্ন১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নোটিশঃ
ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম। নাগরিক আইটি থেকে কম মূল্যে ওয়েবসাইট বানাতে আজই যোগাযোগ করুন। কল করুন- ০১৫২১ ৪৩৮৬০১
সংবাদ শিরোনাম :
মাদ্রাসা উন্নয়নে নগদ অর্থ প্রদান করেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী আবু বক্কর খাঁন সার্চ মানবাধিকার সংগঠনের উদ্যোগে ড. সামছুল হক চৌধুরী ও আবু বক্কর খাঁনকে সংবর্ধনা প্রদান এমপিও নীতিমালার বৈষম্য দূরীকরণের দাবীতে মানববন্ধন সুনামগঞ্জে যুব মহিলালীগের সদর উপজেলা ও পৌর কমিটি অনুমোদন স্মরণ উপ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় যুবলীগ নেতা হৃদয়’র অভিনন্দন দেশ ও প্রবাসের নতুন স্থান পেয়েছেন সার্চ মানবাধিকার সোসাইটি কেন্দ্রীয় কমিটিতে যুক্তরাজ্য প্রবাসী ডক্টর সামছুল হক চৌধুরীকে বিমানবন্দরে ফুলেল শুভেচছা প্রদান বঙ্গবন্ধুর সমাধীতে মহিলা শ্রমিকলীগের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন ও শপথ গ্রহন বিশ্বম্ভপুরে হিলিপ টাকা আত্মাসাতের অভিযোগেে হারুন মিয়া গ্রেফতার যুক্তরাজ্য প্রবাসী আবু বক্কর খাঁনের সমর্থনে মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত
প্রিয় আইয়ুব বখত জগলুল ছিলেন সৎ নির্ভীক সাহসী যোদ্ধা।

প্রিয় আইয়ুব বখত জগলুল ছিলেন সৎ নির্ভীক সাহসী যোদ্ধা।

বিশেষ প্রতিনিধিঃ আইয়ুব বখত জগলুল ছিলেন একজন র্নিলোভ মানুষ,ব্যাক্তি জীবনে তিনি ছিলেন অত্যন্ত সৎ মানুষ, আওয়ামী লীগের জন্য ছিলেন নিবেদিত প্রান। তিনি দীর্ঘ যুগের পর যুগ পর্যন্ত সুনামের সাথে একাধারে ছাত্রলীগ,যুবলীগ,এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সুনামগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক হিসেবে অনেকদিন দায়িত্ব পালন সহ এবং সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র হিসেবে সুনামের দায়িত্ব পালন করেন। মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সাদামাটা মানুষটিকে সুনামগঞ্জের মানুষ একজন সৎ ও দক্ষ রাজনীতিবীদ হিসেবে জানেন। তার মৃত্যুতে সুনামগঞ্জের মানুষ একজন সৎ, দক্ষ ও ত্যাগী রাজনীতিবীদকে হারিয়ে ছিল। আইয়ুব বখত জগলুল ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামীগের সৎ ও ত্যাগী নেতা। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের সৈনিক ছিলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও তাকে একজন সৎ ও ত্যাগী রাজনীতিবীদ হিসেবে জানেন। মহান আল্লাহর কাছে এই দোয়া মোনাজাত করি, আল্লাহ যেন এই সৎ, র্নিলোভ মানুষটিকে জান্নাতের নসিব করেন। মোর নাম এই বলে খ্যাত হোক, আমি তোমাদের-ই লোক”। রাজনৈতিক যে কোন মিটিংয়ে দাঁড়িয়ে প্রায়ই তিনি কবি গুরুর কবিতার এ চরণ দুটো উচ্চারণ করতেন। না। তাঁর এই কবিতার চরণ উদ্ধৃতি বৃথা যায়নি। সত্যিই তিনি মানুষের ভালবাসা পেয়েছেন। পেয়েছেন মানুষকে ভালবাসতেন বলে। তাঁর সান্নিদ্ধে এসে ভালবাসা শিক্ত হয় নি, তেমন মানুষ অন্ততঃ ধরলার উত্তর পাড়ে খুঁজে পাওয়া দায়। যে জন সকলকে ভালবাসতে পারেন; তাকে ভালো না বেসে উপায় কী থাকে (?) পথে ঘাটে অফিস আদালতে যেখানেই তার সাথে কারো দেখা হত, দু’ হাত বাড়িয়ে কাছে টানতেন। তিনি একজন মুজিব আর্দশের লড়াকু সৈনিক ও জননেত্রী শেখ হাসিনার একনিষ্ঠ সহচর হিসেবে আমৃত্যু দায়িত্ব পালন করেছেন বিশেষ করে তিনি খুব আদর করে আমাকে তুই বলেই বলতেন বেশি। আর ‘তুই’ শব্দটাতেই থাকতো যেন জাদুর কাঠি। বিনম্র শ্রদ্ধায় আপ্লুত হতো সবাই। পথে-ঘাটে দেখা না পেলে কেউ তাঁর বাড়িতে দেখা করতে গেলে শুধু মুখে ফিরে এসেছেন এমনটা হয়তো নেই।তাঁর ছিলো এক বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন। প্রকৃতি-সৃষ্টির বিধানে যেভাবে সকলকে ছেড়ে চলে যেতে হয় এক অজানা জগতে। গত ১লা ফেব্রুয়ারি ২০১৮ তারিখে তিনিও সেই বর্ণাঢ্য জীবন শেষে চলে গেছেন পরলোকে । কারো শূণ্যতায় যেমন কিছু আটকে থাকে না কিন্তু যেভাবে চলার কথা তেমন ভাবেও চলেনা। তাই যার কথা এতোক্ষণ বলার চেষ্টা করা হলো সেই ব্যক্তির শূণ্যতাও বুঝিবা পূরণ হবার নয়। তিনি অন্য কেউ নন, দেশ বরেণ্য সুনামগঞ্জ জেলার আপামোর জনগনের ভালবাসার আইয়ুব বখত জগলুল।

শেয়ার করুন
  • 836
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





themesba-zoom1715152249
©সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।
Developed By: Nagorik IT