বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ০৯:২৩ পূর্বাহ্ন১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নোটিশঃ
ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম। নাগরিক আইটি থেকে কম মূল্যে ওয়েবসাইট বানাতে আজই যোগাযোগ করুন। কল করুন- ০১৫২১ ৪৩৮৬০১
সংবাদ শিরোনাম :
জগন্নাথপুরের ১১৪ নং দক্ষিণ প্রভাকরপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি গঠন দক্ষিণ সুনামগঞ্জে লোকনাথ পূজাঁয় প্রতিপক্ষের চুরিকাঘাতে নিহত ১ আহত ২জন বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু”র রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাপন সম্পন্ন ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রনজিত চৌধুরী রাজনকে হত্যা করার চেষ্টার অভিযোগ বহুবিবাহ ঠেকাতে বিবাহ পদ্ধতি ডিজিটাল করা জরুরি : ফররুখ শাহজাদ চলে গেলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু ই‌ন্তেকাল বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন যুক্তরাজ্য শাখার উদ্যোগে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হাওর ভাতা প্রাপ্যতার দাবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান ভাষা শহীদদের প্রতি পুরুষ অধিকার সংগঠনের শ্রদ্ধা নিবেদন মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে স্থাপিত শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ
ফেইসবুকে কমেন্ট নিয়ে হিন্দুদের বাড়িঘর ও মন্দিরে হামলা ভাংচুর-নারীসহ ১১জন আহত , মামলা দায়ের

ফেইসবুকে কমেন্ট নিয়ে হিন্দুদের বাড়িঘর ও মন্দিরে হামলা ভাংচুর-নারীসহ ১১জন আহত , মামলা দায়ের

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:
সুনামগঞ্জের ছাতকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে কমেন্টস্ (মব্য) করাকে কেন্দ্র করে সংখ্যালঘু হিন্দু পরিবারের উপর হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। হামলাকারীরা ঘরবাড়ি ও মন্দির ভাংচুর করেছে।
রবিবার ইফতারের পর (সন্ধ্যায়) পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের তাতিকোনা গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত নারীপূরুষসহ ১১ জন আহত হয়েছেন।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, তাতিকোনা গ্রামের বাসিন্দা তাপশ ও আরিফ মধ্যে ফেইসবুকে কমেন্টস করাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে লিপ্ত হন। এতে পথচারীসহ নারী পূরুষসহ অন্তত ১১ জন আহত হয়েছেন। সংঘর্ষের ঘটনার পর সংখ্যালঘু হিন্দু পরিবারের ঘরবাড়ি ও মন্দিরের আসবাবপত্র ভাংচুর করে মূর্তির গলা থেকে স্বর্ণের নেকলেছ নিয়ে যায় হামলাকারীরা।
আহতরা হলেন, তাপস দাস (৩২), শিপলু দাস (২৭), পবলু দাস (৩২), পিলু দাস (২৬), রাতুল চৌধুরী (৩০), সুমন দাস (২৬),শিপু দাস,জয়ন্তী রানী দাস(৫০),খেলা রানী দাস(৬০),তৃপ্তি রানী দাস(৫৫) ও রিতা রানী দাস(৫৫) প্রমুখ। অন্যন্য আহতদের নাম তাক্ষনিক জানা যায়নি। আহতদের ছাতক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এ ঘটনায় রোববার গভীর রাতে তাপশ দাস বাদি হয়ে হামলাকারী ২২ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরো ২৫কে আসামী করে ছাতক থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখনো কাউকে পুলিশ আটক করতে পারেনি। খবর পেয়ে রাতেই ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোস্তফা কাামলের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনে। এছাড়াও রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ছাতক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম কবির, এসপি সার্কেল (ছাতক) বিল্লাল হোসেন।
তবে আজ সোমবার দুপুর ১টায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান।
এ বিষয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনের সত্যতা নিশ্চিত করে ছাতক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোলাম কবির বলেন, এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। তিনি আরো বলেন উভয় পক্ষকে সামাজিক সম্প্রীতি বজায় রাখার জন্য বলা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।
এ ব্যাপারে ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোস্তফা কালাম দুই বন্ধুর মধ্যে ফেইসবুকে কমেন্ট নিয়ে মূলত এই সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় ২২ জনকে আসামী করে ছাতক থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং আসামীদের গ্রেফতারের প্রচেষ্টা চলছে বলেও তিনি জানান।

শেয়ার করুন
  • 43
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





themesba-zoom1715152249
©সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।
Developed By: Nagorik IT