শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:৩৯ অপরাহ্ন১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নোটিশঃ
ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম। নাগরিক আইটি থেকে কম মূল্যে ওয়েবসাইট বানাতে আজই যোগাযোগ করুন। কল করুন- ০১৫২১ ৪৩৮৬০১
সংবাদ শিরোনাম :
বামিংহামে করোনা দূর্যোগে খাবার বিতরণ করেন আলহাজ্ব কবির উদ্দিন ও ওয়াছিমুজ্জামান ছাতকে মধ্যরাতে জায়গা দখল করে ঘর নির্মাণ-গ্রেপ্তার ১ সুনামগঞ্জে সহকারী শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে হারিছ উদ্দিনের স্বরণ সভা অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে মৎস্যজীবি লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন হাওর বিষয়ক মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন আন্দোলন ফোরামের সংবাদ সম্মেলন স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীরা বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবীতে কর্মবিরতি পালন নাজমুল হকের অকাল মৃত্যুতে নারী নেত্রী ফেরদৌস আরা পাখি”র শোক ও সমবেদনা দিরাই উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে মত বিনিময় করেন ডক্টর সামছুল হক চৌধুরী মাদ্রাসা উন্নয়নে নগদ অর্থ প্রদান করেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী আবু বক্কর খাঁন সার্চ মানবাধিকার সংগঠনের উদ্যোগে ড. সামছুল হক চৌধুরী ও আবু বক্কর খাঁনকে সংবর্ধনা প্রদান
৪৫ দিনের ছুটি নিয়ে ৪ মাস উধাও শিক্ষিকা

৪৫ দিনের ছুটি নিয়ে ৪ মাস উধাও শিক্ষিকা

নিজস্ব প্রতিনিধি :সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার পাইকপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বদরুন নাহার নামের এক শিক্ষিকা ৪৫ দিনের মেডিক্যাল ছুটি নিয়ে ৪ মাস ধরে বিদ্যালয়ে অনুপাস্থিত রয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বাংলাবাজার ইউনিয়নের পাইকপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। এ ঘটনায় ওই বিদ্যালয়ের অন্য শিক্ষক, ছাত্র অভিভাবক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

অভিযোগ রয়েছে, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কার্যালয়ের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারী ওই শিক্ষিকার কাছ থেকে অনৈতিক সুবিধা নিয়েই তার ব্যাপারে এপর্যন্ত কোন প্রকার আইনি ব্যাবস্থা নিচ্ছেন না। এছাড়াও তিনি বিগত বছরগুলোতে অনেক ফাঁকি দিয়েছেন, সব ছুটি আগেই ভোগ করেছেন ঐ শিক্ষিকা।
বিদ্যালয়ের এক শিক্ষক বলেন, আমরা সারা-দিন পরিশ্রম করে যে বেতন পাই, বদরুন নাহার চাকরিতে মাত্র কয়েক বছর পূর্বে যোগদান করে শিক্ষা অফিসের কতিপয় অসাধু ব্যক্তির যোগসাজশে ছুটি না নিয়ে অনুপস্থিত থেকেও বেতন-ভাতাসহ সরকারি সকল সুযোগ-সুবিধা ভোগ করে যাচ্ছেন শিক্ষিকা বদরুন নাহার।
পাইকপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃআইয়ুব আলী জানান, বদরুন নাহার ২০১৯ সালের ২৪ এপ্রিল বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। তিনি গত ১৬ অক্টোবর থেকে ৩০ নভেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত ৪৫ দিনের মেডিক্যাল ছুটি নেন। এরপর থেকে আজ পর্যন্ত প্রায় ৩ মাস ১৪ দিন ধরে তিনি স্কুলে আসছেন না। আমি ফোনে যোগাযোগ করলেও তিনি আজ-কাল করে এ পর্যন্ত আসছেন না । এখন আমার কলও রিসিভ করেনা তাই বাধ্য হয়ে বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে মৌখিকভাবে জানিয়েছি এবং তার হাজিরার স্থলে লাল কালি দিয়ে অনুপস্থিত লিখে রেখেছি।
এ বিষয়ে শিক্ষিকা বদরুন নাহারের মোবাইলে কল রিসিভ না করায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

দোয়ারাবাজার উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা পঞ্চানন কুমার সানা বলেন, বদরুন নাহারের অনুপস্থিতির বিষয়টা আমরা জানি তার মোবাইল ফোনে কল করে তার সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে যাচ্ছি। তবে তার বাবা বলছেন তার মেডিকেল রিপোর্ট জমা দিবেন তিনি। বর্তমানে তার বেতন বন্ধ রয়েছে।

শেয়ার করুন
  • 25
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  





themesba-zoom1715152249
©সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত।
Developed By: Nagorik IT