যুক্তরাজ্য প্রবাসী ও তরুন সমাজসেবক ফুয়াদ আহমদ’র বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করায় সংবাদ সম্মেলন

0
419

স্টাফ রিপোর্টার: সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগের অন্যতম নেতা, যুক্তরাজ্য প্রবাসী, ক্রীড়াবিদ ও তরুন সমাজসেবক ফুয়াদ আহমদ’র বিরুদ্ধে মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত অভিযোগ দায়ের করার প্রতিবাদে এবং দ্রুত প্রত্যাহারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছে তেঘরিয়া এলাকাবাসী। বুধবার দুপুরে শহরের পানসী রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি এহসান আহমদ উজ্জ্বল। লিখিত বক্তব্যে উজ্জ্বল বলেন, ফুয়াদ একটি ব্যক্তির নাম নয় একটি প্রতিষ্ঠানের নাম। ফুয়াদ একজন যুক্তরাজ্য প্রবাসী এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজপথ কাপানো লড়াকু সৈনিক। তার সুনাম নষ্ট করার জন্য এ ধরনের মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করা হয়। এ সময় ফুয়াদ আহমদ তার বক্তব্যে বলেন, সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপি’র নেতা ও কিছু কুচক্রী মহল ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্যমুলক তথ্য উপস্থাপন করে প্রশাসনের কাছে আমাকে বির্তকিত করতে অভিযোগ দায়ের করছেন। প্রকৃতপক্ষে কিছুদিন পূর্বে আমাদের ঐহিত্যবাহী তেঘরিয়া মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ও প্রখ্যাত দ্বীনি আলেম মাওলানা আনোয়ার হোসাইন হুজুরকে মাদ্রাসা থেকে বের করে দেয়া হয় জিয়াউল হকের ইশারাতেই। আনোয়ার হুজুরকে স্বসম্মানে স্বপদে ফিরিয়ে আনার জন্য এলাকাবাসীর কাছে জোর দাবী জানাই আমি। তারই জের ধরে প্রশাসনের কাছে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা কাল্পনিক অভিযোগ দায়ের করেন জিয়াউল হক। আমি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের কাছ থেকে নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে সুরমা নদী লিজ নিয়ে টোলট্যাক্সের ব্যবসা করে আসছি। অথচ জিয়াউল হকের নেতৃত্বে একটি কুচক্রী মহল আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও বানোয়াট রিসিট তৈরী করে চাঁদাবাজীর অভিযোগ দায়ের করছেন এবং সদর থানায় জিয়াউল হক বাদী হয়ে তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছি উল্লেখ করে একটি জিডি দায়ের করেন। যা আদৌ সত্য নয়। তেঘরিয়া মাদ্রাসা ও মসজিদ কমিটিতে ঢুকার জন্য তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবেই এ সব অভিযোগ করা হয়। আমি কিংবা আমার কোন কর্মী নদীতে চাঁদাবাজীর সাথে জড়িত নাই। এমনকি আইনশৃংখলার বিঘœ ঘটে এ ধরনের কর্মকান্ডের সাথেও জড়িত না। শহরের একজন চিহ্নিত বিএনপি নেতা জিয়াউল হক কিভাবে রাতা রাতি কোটিপতি হয়েছেন তা আপনাদের সবারই জানা। আমার বিরুদ্ধে কাল্পনিক তথ্য উত্থাপন করে আইনশৃংখলা বাহিনীকে লেলিয়ে দেয়া হচ্ছে। এসব মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্যমুলক অভিযোগের বিরুদ্ধে আমরা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। আইনশৃংখলা বাহিনীকে সুস্পষ্টভাবে জানিয়ে দিতে চাই, আমি কোন সন্ত্রাসী কিংবা চাঁদাবাজ নয়। আমি জননেত্রী শেখ হাসিনার একনিষ্ট কর্মী। আমার বিরুদ্ধে বিএনপি’র নেতাকর্তৃক দায়েরকৃত কোন অভিযোগ দায়ের করলে সুষ্টু তদন্তের মাধ্যমে যথাযথ ব্যবস্থা নিন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি এহসান আহমদ উজ্জ্বল, সুনামগঞ্জ পৌরসভার কাউন্সিলর সামছুজ্জামান স্বপন, কাউন্সিলর মোঃ ফয়জুন নুর,মেন সেষ্টার প্রবাসী কল্যাণ সমিতির সাধারন সম্পাদক রেজভী আহমেদ,সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম আহবায়ক তৈয়বুর রহমান রাহি,সদস্য সানিয়াল আহমদ,জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি আবু সাইয়িদ আপন,কাওসার আহমেদ,যুগ্ম সাধারন সম্পাদক রাহাত আহমেদ,সদর থানা ছাত্রলীগ নেতা শাফায়েত জামিল,জায়েদ আহমদ,নাইম,মাকসুদ ও রাহল প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here