আমার প্রিয় একনায়ক কোথায়? সিসিকে ট্রাম্পের সম্বোধন

0
43

নিউ টাইমস ডেস্ক: চমৎকার অলঙ্কৃত হোটেল ডু প্যালেইসে মিসরীয় প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আল সিসির জন্য অপেক্ষা করছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।
ফ্রান্সের বিয়ারিটসে জি৭ সম্মেলনের ফাঁকে তাদের বৈঠকে বসার কথা। তখন হঠাৎ করে স্বর উঁচু করে ট্রাম্প বলেন, কোথায় আমার প্রিয় একনায়ক?

২৬ আগস্ট ট্রাম্প যখন এমন মন্তব্য করেন, তখন অন্তত ১০ মার্কিন ও মিসরীয় কর্মকর্তা প্রেসিডেন্ট সিসির জন্য অপেক্ষা করছিলেন।-খবর ওয়ালস্ট্রিট জার্নালের
হোটেল কক্ষে উপস্থিত মার্কিন ও মিসরীয় কর্মকর্তারা ট্রাম্পের সেই কণ্ঠ শুনতে পেয়েছিলেন। উপস্থিত কর্মকর্তারা বলেন, ট্রাম্প যখন এভাবে ডাকছিলেন, তখন আমরা তা শুনতে পেয়েছি।

তবে মিসরীয় প্রেসিডেন্ট সেই কণ্ঠ শুনতে পেয়েছিলেন কিনা, তা জানা সম্ভব হয়নি। আকস্মিক সিসিকে এভাবে সম্বোধন করায় উপস্থিত কর্মকর্তারা বিস্ময়ে নীরব হয়ে যান।
প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, ট্রাম্প তামাশা করে সিসিকে এভাবে ডেকেছেন। যদিও তাতে অনেকে অবাক হয়েছেন।
যুক্তরাষ্ট্রের অর্থমন্ত্রী স্টিভ মানুচিন, তখনকার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন ও হোয়াইট হাউসের প্রধান অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ল্যারি কুডলো সেখানে ছিলেন।
মিসরের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও গোয়েন্দা বিভাগের প্রধানও সেখানে ছিলেন বলে খবরে বলা হয়েছে।

২০১৩ সালে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত মিসরীয় প্রেসিডেন্ট প্রয়াত মোহাম্মদ মুরসির কাছ থেকে ক্ষমতা কেড়ে নেয়ার পর কঠোর হাতে দেশ চালাচ্ছেন সিসি।
হাজার হাজার রাজনৈতিক বিরোধীকে আটক, নির্যাতন ও কারাগারে হত্যার অভিযোগ রয়েছে তার সরকারের বিরুদ্ধে। তবে এই মানবাধিকার লঙ্ঘনের দায়ে কখনই সিসি সরকারের প্রকাশ্য নিন্দা করেনি মার্কিন প্রশাসন।
রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনসহ কর্তৃত্ববাদী শাসনের জন্য বিখ্যাত বিশ্বনেতাদের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখে চলছেন ট্রাম্প।

সেদিন মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই মন্তব্যের কয়েক মিনিট পর দুই নেতার মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। পরে সাংবাদিকদের সামনে তারা নিজেদের মধ্যে সম্পর্ক উদযাপন করেন।
ট্রাম্প বলেন, আমরা পরস্পরকে খুব ভালোভাবেই বুঝি। আমি আপনাদের বলব, তিনি খুবই কঠিন মানুষ। কিন্তু তিনি অবশ্যই ভালো মানুষও। মিসরে তিনি চমৎকার কাজ করেছেন, যা খুব সহজ ছিল না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here