জনগনের জানমালের নিরাপত্তার জন্য কাজ করছে পুলিশ পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বিপিএ।

0
54

স্টাফ রিপোর্টার: হেয়ার কাটিং ‘খারাপ দেখলে’ কমবয়সী ছেলেদের আটক করবে পুলিশ। আটক করে অভিভাবককে তলব করা হবে । মুচলেকা দিয়ে মিলবে মুক্তি। এছাড়াও কমবয়সী ছেলে কিংবা শিক্ষার্থীদের মোটরসাইকেল চালাতে অভিভাকদের সতর্কত থাকতে হবে। তবে গত বৃহস্পতিবার রাতে শহরে পুলিশি টহল চালানোর জন্য কিছু লোকজনকে আটক করে যাচাই বাছাই অন্তে তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়েছিল। এ নিয়ে শহরবাসীকে আতংকিত হওয়ার কিছু নেই। পুলিশ জনগনের জানমালের নিরাপত্তার জন্য কাজ করছে। গতকাল রবিবার দুপুরে সাংবাদিককের সম্মুখে সুনামগঞ্জ পুলিশ সুপার মো: মিজানুর রহমান এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, শহরে কমবয়সী ছেলেদের মধ্যে যারা মোটরসাইকেল চালায় তাদের বেশীরভাগ ড্রাইভিং লাইসেন্স বা গাড়ীর কাগজ নেই। আপনার টাকা হলো ছেলেদের মোটরসাইকেল কিনে দিবেন তা ঠিক না। তিনি আরো বলেন, আমার একশন হবে জনগনের স্বার্থে, জনগণকে আতংকিত করার জন্য নয়। শহরের আইনশৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পুলিশি অভিযান পরিচালনা করা হবে। তিনি আরও বলেন, অভিযান পরিচালনার সময় পুলিশের কোন কর্মকর্তা কিংবা সদস্য অন্যায়ভাবে কাউকে হয়রানী করলে সরাসরি আমাকে জানাবেন। আর রাত ৯টার পর রাস্তায় কোন আড্ডা দেয়া যাবে না। চায়ের স্টলে আড্ডা দেয়া যাবে না। ফার্মেসি, বিপনী বিতান, মুদি দোকান খোলা থাকবে। কোনো অবৈধ জিনিস বা অবৈধ যানবাহন না থাকলে গভীর রাতে চলাচল করতে পারবে পথচারীরা। কেবল সন্দেহভাজনদের শালীনতার সহিত চেক করা হবে। আতঙ্কিত না হয়ে পুলিশকে সহযোগিতা করার আহবান জানান তিনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: মিজানুর রহমান পিপিএম (পদোন্নতিপ্রাপ্ত এসপি), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু তারেক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) জয়নাল আবেদীন, ডিবি’র ওসি কাজী মুক্তাদির হোসেন, ডিআইও-২ আব্দুল লতিফ তরফদারসহ পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাসহ স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here